এবার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হলেন ইংল্যান্ডের দুই নারী ক্রিকেটার

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

খেলাধুলা প্রতিবেদক:- ক্রিকেট দুনিয়ায় ফের দেখা গেল সমকামী বিয়ে। এবার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন ইংল্যান্ড জাতীয় দলের অল-রাউন্ডার ন্যাট শিভার এবং পেসার ক্যাথেরিন ব্রান্ট। গত পাঁচ বছর ধরে তারা প্রেম করছিলেন। তিন বছর আগেই তারা বিয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন।

কিন্তু কোভিডের কারণে সেই বিয়ে পিছিয়ে দিতে হয়। এবার সব ঝামেলা ঝক্কি শেষে তারা পরিণয়ে আবদ্ধ হলেন।২০১৭ সাল থেকে প্রেম করছিলেন শিভার এবং ব্রান্ট। ২০১৮ সালে দুজনে বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

সেই মতো ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে তাদের বাগদান হয়ে যায়। বিয়ে হওয়ার কথা ছিল ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে। সেই সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের টি-টোয়েন্টি সিরিজ হওয়ার কথা ছিল। সিরিজের মাঝেই বিয়ে করবেন ভেবেছিলেন শিভার ও ব্রান্ট।

তখন থেকেই এই বিয়ে নিয়ে তুমুল উৎসাহ ছিল ইংল্যান্ড দলে শিভার-ব্রান্টের সতীর্থদের।কিন্তু সব পরিকল্পনায় জল ঢেলে দেয় করোনা মহামারী। সেই মহামারী শেষে গতকাল ২৯ মে শিভার এবং ব্রান্ট বিয়ে সেরে ফেলেন। জানা গেছে, খুব কাছের মানুষেরা উপস্থিত ছিলেন বিয়েতে।

ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) পক্ষ থেকে তাদেরকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে। এর আগে ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ডের অ্যামি সাদারওয়েট-লিয়া তাহুহু এবং ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মারিজেন কাপ-ডেন ভ্যান নিয়েকার্ক সমকামী বিয়ে করেছিলেন।জাতীয় দলে শিভারের অনেক আগে থেকে খেলছেন ব্রান্ট। তিনি সমকামী হলেও সতীর্থের সঙ্গে তার প্রেম হবে, এ কথা ভাবেননি।

কিন্তু শিভার জাতীয় দলে আসার পর দুজনের একে অপরকে ভালো লাগে। প্রথমের দিকে দল সফরে গেলে হোটেলে একই ঘরে থাকতেন শিভার ও ব্রান্ট। ফলে তাদের সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হয়। ২০১৭ সালে তাদের সম্পর্কের কথা দলের অন্যদের বলেন ব্রান্ট। সবাই তাদের অভিনন্দন জানায়। তাদের বিয়ে নিয়ে সতীর্থদের উৎসাহই বেশি ছিল।

২৯ বছরের শিভার ক্রিকেট চালিয়ে যেতে চাইলেও ৩৬ বছরের ব্রান্ট এবার সংসার করতে চান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে পিঠের চোটে ভুগছেন। তাই আর বেশি দিন খেলা চালিয়ে যেতে পারবেন না বলেই জানিয়েছেন। বিয়ের পরেই ক্রিকেট থেকে অবসর নিতে চান ব্রান্ট। তাতে শিভারের কোনো সমস্যা নেই। বরং তিনি খুশি, যে সংসার সামলানোর কেউ থাকবে। অন্য দম্পতিদের মতো সন্তান নেওয়ারও পরিকল্পনা আছে তাদের।

তবে সেটা কবে সেই বিষয়ে এখনও কিছু ভাবেননি দুই ক্রিকেটার।ডান হাতি ব্যাটার ও ডান হাতি বোলার শিভার ২০১৩ সালে অভিষেকের পর ৮৯টি ওয়ানডে ম্যাচে ২৭১১ রান করেছেন। পাঁচটি সেঞ্চুরি ও ১৬টি হাফ-সেঞ্চুরির সঙ্গে এই ফরম্যাটে ৫৯টি উইকেটও নিয়েছেন তিনি।

৯১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে শিভারের সংগ্রহ ১৭২০ রান। নিয়েছেন ৭২টি উইকেট। অন্য দিকে ব্রান্ট ইংল্যান্ডের হয়ে ২০০৪ সাল থেকে খেলছেন। ১৪০টি ওয়ানডে ম্যাচে তার শিকার ১৬৭টি উইকেট। ৯৬টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৯৮টি উইকেট নিয়েছেন এই ডান হাতি বোলার।