পুতিনের বান্ধবীকে নিষেধাজ্ঞা থেকে বাদ রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্র!

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp
Share on email
Email

অনলাইন ডেস্ক:- ইউক্রেনে হামলার পর একের পর এক পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ছে রাশিয়া। বিশেষ করে রাশিয়ার বড় বড় ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে খোদ পুতিন ও তার মেয়েদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা সবার নজরে এসেছে। তবে রাশিয়াকে জব্দ করার এত আয়োজনের মধ্যে পুতিনের বান্ধবী অ্যালিনা কাবায়েভাকে বাদ রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্র।দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনের তথ্য মতে, যুক্তরাষ্ট্র মনে করে অ্যালিনা কাবায়েভার ওপর নিষেধাজ্ঞা মানেই পুতিনকে ব্যক্তিগতভাবে আঘাত করা।

এর ফলে রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যকার চলমান উত্তেজনা আরও খারাপের দিকে যেতে পারে।মার্কিন কর্মকর্তারা মনে করেন, পুতিনের দুই মেয়েকে ইতোমধ্যে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। কাবায়েভার ওপরও যদি নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় তাহলে ইউক্রেনের জন্য শান্তি-আলোচনা আরও জটিল করে তুলবে। তারপরেও কাবায়েভার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি আলোচনার টেবিলে রয়েছে বলে জানান তারা। ভবিষ্যেতে নিষেধাজ্ঞার তালিকায় কাবায়েভারকে আনা হতে পারে।এদিকে পুতিন-কাবায়েভা সম্পর্কের বিষয়টি ক্রেমলিন সবসময় অস্বীকার করে এসেছে। কাবায়েভা নিজেও পুতিনের সাথে সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি। তবে পশ্চিমারা কাবায়েভাকে পুতিনের বান্ধবী বলেই বিশ্বাস করে।২০০৮ সালে একটি পত্রিকায় পুতিন ও কাবায়েভার সম্পর্কের বিষয়ে লেখা প্রকাশ হলে পুতিন বলেছিলেন, অন্যের ব্যক্তিগত জীবনে নাক গলানো লোকদের তিনি বরাবরই অপছন্দ করে এসেছেন।কাবায়েভারের জন্ম উজবেকিস্তানে। তিনি একজন অলিম্পিক চ্যাম্পিয়ন। তার শারীরিক নমনীয়তা ও মাদক কেলেঙ্কারি; দুটোই তাকে বিশ্বমঞ্চে বিখ্যাত করে তোলে।

সূত্র : দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল